কেস স্টাডি কাকে বলে ? [ What is Meant by Case Study? ]

কেস স্টাডি কাকে বলেঃ কার্য সম্পাদনকালে বানিজ্যিক ব্যাংকসমূহ নানা প্রকার সমস্যার সম্মুখীন হয়। এসব সমস্যা বেশীর ভাগই ঋণ বা অগ্রীম সংক্রান্ত অর্থাৎ লাভের আশায় ব্যাংক প্রদত্ত ঋণ বা অগ্রীম পরিকল্পিত সময়ে সুদাসলে আদায় না হলে ব্যাংক এরূপ সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকে। এছাড়াও ব্যাংক প্রতিনিয়ত প্রশাসনিক সমস্যা, জনসম্পদ সম্পর্কিত সমস্যা, আমানত ব্যবস্থাপনা সমস্যা, কর সম্পর্কিত সমস্যা, ব্যবসায়িক নৈতিকতা ও সামাজিক দায়িত্ব সম্পর্কিত ইত্যাদি সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকে।

নানা প্রকার সমস্যা অতিক্রান্ত করে ব্যাংকের দৈনন্দিন কার্যক্রম সম্পাদন করতে হয়। এ সব সমস্যা সমাধান করা একান্ত আবশ্যক। কিন্তু কোন সমস্যারই একটি মাত্র সমাধান থাকে না। বরং ব্যাংক, সিদ্ধান্তকারী, দেশের রাজনৈতিক, সামাজিক ও অর্থনৈতিক অবস্থার তারতম্য ভেসে সমাধান ও ভিন্নতর হওয়া খুবই স্বাভাবিক। অর্থাৎ কোন একটি নির্দিষ্ট সমস্যার সর্বজনগ্রাহ্য কোন কারিগরী সমাধান (Mechanical Solution) নেই বললেই চলে। একই সমস্যার জন্য ‘ক’ ব্যাংকের সমাধান একরূপ এবং ‘খ’ ব্যাংকের সমাধান অন্যরূপ হওয়া বিচিত্র নয়।

কেস স্টাডি কাকে বলে ? [ What is Meant by Case Study? ]

কেস স্টাডি কাকে বলে ? [ What is Meant by Case Study? ]

সঙ্গত কারনেই জানা প্রয়োজন কেস স্টাডি বলতে কি বুঝায়। আর কেস স্টাডি বুঝার পূর্বে জানা প্রয়োজন কেস কি? কেস বলতে বুঝায় ব্যাংক সহ যে কোন একটি প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তির কোন নির্দিষ্ট সময়ে উদ্ভূত একটি গুণগত ও পরিমাণগত অবস্থার সংক্ষি অভিজ্ঞতার আলোকে বাস্তব ক্ষেত্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তি এসব অবস্থার প্রেক্ষিতে প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত গ্রহন করে থাকে। ব্যাংকের এ সকল ব্যস্তব অবস্থার সাথে পূর্বাহ্ণেই পরিচিত হলে ব্যাংক বিষয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের তথ্য ব্যাংকে নুতন নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের জ্ঞান ও বৃদ্ধি করা সম্ভব।

শহীদের সকল গোনাহ মাফ করে দেওয়া হয়।

কিন্তু ঋণ এর ব্যতিক্রম

                                         – আল-হাদীস

কোন একটি ব্যস্তব অবস্থায় নিজকে (ছাত্র অথবা কর্মকর্তা) সম্পৃক্ত ও দায়িত্বপ্রাপ্ত মনে করে সঠিক সিদ্ধান্ত নেয়ার লক্ষ্যে একটি কাল্পনিক অবস্থা বিচার বিশ্লেষণ করাকে কেস স্টাডি বলা যেতে পারে। অর্থাৎ যে বা যারা এখনো দায়িত্বপ্রাপ্ত হয়নি, যদি দায়িত্বপ্রাপ্ত হত তাহে কোন বিশেষ অবস্থায় প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত গ্রহনে কিরূপ বিশ্লেষণ ও পর্যায় অনুসরণ করতো তার একটি মহড়া বা নাটক করাকেই কেস বিশ্লেষণ হিসেবে আখ্যায়িত করা যেতে পারে।

কেস স্টাডির প্রকার ভেদ [ Types of Case Studies ]

ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা কর্পোরেশন প্রতিনিয়ত নুতন নুতন অবস্থার সম্মুখীন হয়ে থাকে। এতভিন্ন পরিবেশ, রাষ্ট্র তথা কোম্পানীর নীতি ও প্রয়োজন পরিবর্তনের সাথে পরিবর্তিত অবস্থার সিদ্ধান্ত ভিন্নতর হওয়া অস্বাভাবিক নয়, অর্থাৎ ব্যবহারকারীর বিভিন্ন প্রয়োজন মেটানোর জন্য পরিস্থিতি তথা কেস বিশ্লেষণ ভিন্নতর হওয়া স্বাভাবিক। অপরপক্ষে অধ্যয়নের জন্য বিশ্লেষণধর্মী কেস সমূহ ভিন্নতর হতে পারে বিধায় প্রস্তুতকরণের নিরিখে কেস স্টাডি বিভিন্ন ধরনের হওয়া খুবই স্বাভাবিক। যাহোক নিজে কেস স্টাডির প্রকারভেদের একটি চিত্র পরিবেশিত হল

কেস স্টাডি কাকে বলে ? [ What is Meant by Case Study? ]

কেস স্টাডির প্রকার ভেদ

১. প্রস্তুতকরণ ভিত্তিক

  • জরিপ বা মাঠ সমীক্ষা
  1. পর্যবেক্ষণ
  2. সমাধান
  • অভিজ্ঞতাপ্রসূত
  • প্রকাশিত তথ্যের বিশ্লেষণ

২. উদ্দেশ্য ভিত্তিক

  • সমাধান তথ্য সিদ্ধান্তমূলক
  • মূল্যায়নমূলক
  1. সমষ্টিক
  2. ব্যাস্টিক
  • ঐতিহাসিক নাম শিক্ষামূলক
  • মূল সমাধানের আনুসাঙ্গিক প্রতিলিপিমূলক
  1. শিল্পসম্পৃক্ত
  2. কারিগরি সম্পৃক্ত
  3. ইতিপূর্বে গৃহীত সমজাতীয়
  4. কারিগরী সমাধান

নিম্নে প্রধান কেস স্টাডিসমূহের সংক্ষিপ্ত ইংগিত দেয়া হল।

কেস স্টাডি কাকে বলে ? [ What is Meant by Case Study? ]

১. প্রস্তুতকরণ ভিত্তিক কেস স্টাডি সমূহঃ

কেস স্টাডি প্রস্তুতকারক তথা লেখক সরেজমিনে নির্দিষ্ট প্রতিষ্ঠানের নির্দিষ্ট ক্রিয়াকলাপ বা কার্যক্রম সম্পর্কে উপভোগ্য অবস্থার সৃষ্টি কর যে কেস স্টাডি প্রস্তুত করেন তা মাঠ ভিত্তিক কেস স্টাডি বলে পরিচিত। এধরনের কেস স্টাডি মাঠ পর্যবেক্ষন বা সরে বক্তিবর্গের পরিকল্পিত সাক্ষাত ভিত্তিক হতে পারে। কিন্তু যেখানে এরূপ প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ কষ্টকর বা সাক্ষাতকারে সঠিক তার নিঘাটন করা অসম্ভব সেখানে অভিজ্ঞতার ভিত্তিতেও কেস প্রস্তুত করা হয়ে থাকে। অপরপক্ষে যে প্রতিষ্ঠানের সমস্যা নিয়ে কেস প্রস্ততের প্রস্তুতি নেয়া হয় সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সে প্রতিষ্ঠানের কর্তৃক প্রকাশিত কাগজপত্র থেকে ঐ প্রতিষ্ঠান সংক্রান্ত এর ব্যাপারে জার্নাল ম্যাগাজিন বা পত্রিকায় প্রকাশিত তথ্যের ভিত্তিতেও এক ধরনের কেস স্টাডি প্রস্তুত করা হয়ে থাকে।

২. উদ্দেশ্যভিত্তিক কেস স্টাডিসমূহঃ

বাস্তবক্ষেত্রে নিয়োজিত দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তি, নির্দিষ্ট বিষয়ে পাঠরত ছাত্র-ছাত্রী বা নির্দিষ্ট বিষয়ে প্রশিক্ষনরত কর্মকর্তা/কর্মচারীবৃন্দের প্রয়োগ তথা শিক্ষনের প্রয়োজনে যে সকল কেস স্টাডি তৈরী করা হয়ে থাকে সেগুলোকে উদ্দেশ্যভিত্তিক কেস স্টাডি নামে অভিহিত করা যেতে পারে। বিশেষ কোন সমস্যার সমাধান লক্ষ্যে প্রস্তুতকৃত কেসগুলো এক প্রকার উদ্দেশ্যমূলক কেস স্টাডি, আবার কোন অবস্থা বা প্রতিষ্ঠানের কোন নির্দিষ্ট কার্যক্রমের সমষ্টিক বা ব্যাষ্টিক মূল্যায়ন ভিত্তিকও কেস স্টাডি হতে দেখা যায়। অপরপক্ষে অতীত অবস্থার নিরিখে বর্তমান বা ভবিষৎ অনুমান করার জন্য ঐতিহাসিক ক্রমবিন্যাসমূলক কেস স্টাডি ব্যবহারের নিদর্শনত অহরহ পরিদর্শিত হয়। কোন কোন সময় ব্যাপকতর সমস্যাসমূহের সামাধানের জন্য সংশ্লিষ্ট তথা অনুসাংগিক বিষয়ে স্টাডি করা আবশ্যক হয়ে থাকে।

আরও পড়ুনঃ

 

“কেস স্টাডি কাকে বলে ? [ What is Meant by Case Study? ]”-এ 1-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন