ব্যাংকের আমানত ও তহবিল

ব্যাংকের আমানত ও তহবিল

ব্যাংকের আমানত ও তহবিল

ব্যাংকের আমানত ও তহবিল

ক. ব্যাংক আমানত বীমা (Deposit Insurance Scheme)

ব্যাংকে রক্ষিত আমানতকারীদের আমানত রক্ষার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক একটি (Deposit Insurance Scheme) পরিচালনা কে আমানতকারীদের স্বার্থে The Deposit Insurance Ordinance জারীর মাধ্যমে আমানত বীমা শীম প্রবর্তন করা হয়। উক্ত আইরাষ্ট্রায়ত্ত্ব বেসরকারী ও বিদেশী সকল ব্যাংকের জন্য আমানত বীমা স্কীমে অংশ গ্রহন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ঝাংকসমূহ তাদের গৃহীত আমানতের প্রতি ১০০ টাকার জন্য ৭ (সাত) পয়সা হারে বাল্মাসিক ভিত্তিতে Deposit Insurance Scheme- প্র বাঘজামুলকভাবে প্রদান করে।

তবে বগুলাদেশ ব্যাংক প্রিমিয়ামের হার হ্রাস-বৃদ্ধি করনের ক্ষমতা সংরক্ষন করে। উক্ত প্রিমিয়াম বাংলাদেশ ব্যাংক Deposit Insurance Fund এ জমা করে। কোন ঝ্যাকে শুধুমাত্র অবলুপ্ত হলেই উরু তরবিলে জমাকৃত অর্থ হতে আমানতকারীদের বীমাকৃত অর্থ পরিশোধের বিধান রয়েছে। এ ভীমের অধীনে একজন আমানতকারীর সম্পূর্ণ আমনতই বীমাকৃত। তবে উহ্যর সর্বোচ্চ সীমা হচেছ এক লক্ষ টাকা। অর্থাৎ Deposit Insurance Scheme-এর আওতায় কোন ব্যাংক অবলুপ্ত হলে একজন আমানতকারী সর্বোচচ এক লক্ষ টাকা পর্যন্ত ফেরত পাবেন।

Deposit Insurance Fund টি ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে নিয়োজিত রয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকে। তহবিল জমাকৃত অর্থ হতেই তহবিলটি পরিচালনার ব্যয়ভার বহন করা হয়।

কোন ব্যাংক অবলুপ্ত হলে উহার জন্য নিয়োজিত “লিকুইডেটর ” তার দায়িত্ব গ্রহনের ৩ মাসের মধ্যে ঐ ব্যাংকের আমানতকারীদের একটা তালিকা তাদের প্রত্যেকের আমনাতের পরিমাণ উল্লেখসহ বাংলাদেশ ব্যাংকের নিকট পেশ করবে। ঐ তালিকায় যে আমানত হিসাবানে ও প্রদর্শন করা হবে, সে পরিমান আমানতই ঐ অবলুপ্ত ব্যাংকটি Deposit Insurance Scheme-এর অধীনে আইনগত ভাবে পাওয়ার দাবী করতে পারে।

থ্রে The Deposit Insurance Ordinance 1984-এর বিধানানুযায়ী লিকুইডেটর এর নিকট হতে পূর্বে বর্ণিত আমানতকারীদের তালিকা ও আমানতের পরিমাণ জানার পর ২ (দুই) মাসের মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক প্রত্যেক আমানতকারীকে র্থে The Deposit Insurance Fund হতে আমানতের অর্থ পরিশোধ করবে।

ব্যাংকের আমানত ও তহবিল

খ. ব্যাকের তহবিল সংক্রান্ত নির্দেশনা

তহবিল সংরক্ষনঃ

নিবন্ধিত প্রত্যেক ব্যাংক কোম্পানী একটি সংরক্ষিত তহবিল ও আদায়কৃত মূলধনসহ একটি শেয়ার প্রিমিয়াম একাউন্ট গঠন করবে। ব্যাংক কোম্পানী তার লাভের কোন অংশ সরকারের নিকট হস্তান্তর বা লভ্যাংশ হিসেবে ঘোষনা করার পূর্বে অন্যূন ২০% পরিমান সংরক্ষিত তহবিলে হস্তান্তর করবে।

ব্যাংক যদি শেয়ার প্রিমিয়াম বা সংরক্ষিত তহবিল হতে কোন অর্থ অন্য কাজে লাগাতে চায় তবে তা অবশ্যই ব্যাংকে ২১ দিনের মধ্যে অবহিত করবে। তফসিলি ব্যাংক ব্যতীত প্রতিটি ব্যাংক কোম্পানী সংরক্ষিত নাদ তহবিল হিসেবে উহার মেয়াদী ও চাহিবামাত্র পায়ের ৫% এর সমপরিমান অর্থ নিজের কাছে, বা বাংলাদেশ ব্যাংকে বা উহার প্রতিনিধিত্বকারী ব্যাংকে উভয় ব্যাংকে সমান অংশে মজুদ রাখবে।

উল্লে থাকে যে, বাংলাদেশ ব্যাংক যখন সংরক্ষিত তহবিল সম্পর্কে কোন ব্যাংক কোম্পানীকে তলব করবে তখন উক্ত ব্যাংক কোম্পানী দুইজন অফিসারের সাক্ষ্যসহ বাংলাদেশ ব্যাংকে উপস্থাপন করবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্ধারিত সময় সীমার মধ্যে দাখিল করতে না। পারলে ২৫০০ টাকা দন্ডের ব্যবস্থা রয়েছে। এমন কি বাংলাদেশ ব্যাংক যদি খতিয়ে দেখে কোন ব্যাংক কোম্পানীর বাংক কোম্পানী আইন। [ সেকশন ২৪,২৫ ]

ব্যাংকের আমানত ও তহবিল

গ. ব্যাংক কোম্পানী কর্তৃক লভ্যাংশ প্রদানের নিয়মাবলী :

কোন ব্যাংক কোম্পানীকে উহার শেয়ারের উপর লভ্যাংশ প্রদান করার ক্ষেত্রে ব্যাকে কোম্পানী আইন, ১৯৯১ এর ২২ ধারার বিধানাবলী পালন সাপেক্ষে তা করতে হবে। ২২(১) উপধারায় বলা হয়েছে যে, নূতন ব্যাংক অথবা বিশিষ্ট ব্যাংক ব্যতীত কোন ব্যাংক কোম্পানী উহার শেয়ারের উপর লভ্যাংশ প্রদান করবে না, যদি

(ক) বাকের প্রাথমিক ব্যায়, সংগঠনিক ব্যয়, শেয়ার বিক্রি বা দালালীর কমিশন, লোকসান এবং অন্যান্য ব্যয়সহ মূলধনে পরিণত এর সকল ব্যয় অবলোকন করা না হয়ে থাকে, অথবা

(খ) যদি ব্যাংকটি পরিশোধিত ও সংরক্ষিত তহবিল হিসাবে উহার চাহিবামাত্র দায় ও মেয়াদী পায় এর অনূন ৬% এর সম পরিমা বজায় রাখিতে ব্যর্থ হয়। ২২(২) উপধারা (১) বা কোম্পানী আইন ভিন্নরূপ বিধান থাকা সত্ত্বেও কোন ঝাংক কোম্পানী ব্যাতিরেকেই ইহার শেয়ারের উপর নিম্নবর্ণিত অবস্থায় লভ্যাংশ প্রদান করতে পারবে

অনুমোদিত সম্পত্তি নিদর্শন পত্রে বিনিয়োগকৃত অর্থের মূল্য হ্রাস হলেও যদি তদ্বারা প্রকৃত পক্ষে মূলধনের উপর প্রভাব না পড়ে উহাকে অন্যকোনভাবে লোকসান হিসাবে গণ্য না করা হয়।

(খ) অনুমোদিত সম্পত্তি-নিদর্শন পত্র তৃতীত যে কোন শেয়ার, জগপত্র বা বন্ডে বিনিয়োগকৃত অর্থের মূল্য হ্রাস বাকে কোম্পানীর নিরীক্ষকের সম্পত্তি মোতাবেক পর্যাপ্ত সম্পত্তির ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়ে থাকে।

গ) অনাদায়যোগ্য ক্ষণের ব্যাপারে যদি ব্যাংক কোম্পানীর নিরীক্ষনের সন্তুষ্টি মোতাবেক পর্যাপ্ত সম্পত্তির ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়।

“Bad loans are the worst sort of tyranny

                                                                       Edmund Burke

আরও পড়ুনঃ

মন্তব্য করুন