বাংলাদেশের ব্যাংক ব্যবস্থা [ Banking System in Bangladesh ]

বাংলাদেশের ব্যাংক ব্যবস্থা [ Banking System in Bangladesh ] : বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নাম “বাংলাদেশ ব্যাংক“। এটির প্রধান কার্যালয় ঢাকার মতিঝিলে অবস্থিত। ঢাকায় দুটি শাখাসহ প্রত্যেকটি বিভাগে ১টি করে বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বমোট ৯টি শাখা রয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশে বিশেষায়িত ব্যাংক গুলো হলো বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, বাংলাদেশ শিল্প ব্যাংক, বাংলাদেশ শিল্প ঋণসংস্থা, ব্যাংক অব স্মল ইন্ডাষ্ট্রিজ এন্ড কমার্স বাংলাদেশ লিমিটেড, গ্রামীন ব্যাংক ও কর্মসংস্থান ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংক লোগো [ Bangladesh Bank Logo ]
বাংলাদেশ ব্যাংক লোগো [ Bangladesh Bank Logo ]

Table of Contents

[ বাংলাদেশের ব্যাংক ব্যবস্থা [ Banking System in Bangladesh ] ]

বাংলাদেশে তিন ধরনের বাণিজ্যিক ব্যাংক কার্যরত আছে বলে পরিলক্ষিত হয়। যথা : রাষ্ট্রায়াত্ত বাণিজ্যিক ব্যাংক দেশী-বেসরকারী বাণিজ্যিক ব্যাংক ও বিদেশী বেসরকারী বাণিজ্যিক ব্যাংক। ১৯৯৯ সনের নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে এরূপ কার্যরত রাষ্ট্রায়ত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংকের সংখা ৪টি দেশী বেসরকারী বাণিজ্যিক ব্যাংকের সংখ্যা ২৩টি ও বিদেশী বাণিজ্যিক ব্যাংকের সংখ্যা ১৩টি দেখা যায়। এগুলোর তালিকা নিচে দেখা যেতে পারে :

রাষ্ট্রায়ত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংকের নাম :

সোনালী ব্যাংক [ Sonali Bank Limited] :

সোনালী ব্যাংক লিমিটেড দেশের বৃহত্তমরাষ্ট্রায়ত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংক। সোনালী ব্যাংক প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো ‘বাংলাদেশ ব্যাংক (ন্যাশনালাইজেশন) অর্ডার ১৯৭২’ অনুসারে। সোনালী ব্যাংক বর্তমান অনুমোদিত মূলধন ৬০০০ কোটি টাকা। সোনালী ব্যাংক লি: এর পরিশোধিত মূলধন ৪১৩০ কোটি টাকা। সোনালী ব্যাংক লিমিটেড সুইফট কোড BSONBDDH। সোনালী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় অবস্থিত ঢাকার মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকায় । সারা দেশেই ব্যাংকটির শাখা রয়েছে।

 

জনতা ব্যাংক [ Janata Bank Limited ] :

জনতা ব্যাংক লিমিটেড দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংক। এটি বাংলাদেশের বাণিজ্যিক ব্যাংক। জনতা ব্যাংকের অনুমোদিত মূলধন মোট ৩০,০০০ মিলিয়ন টাকা। জনতা ব্যাংকের পরিশোধিত মূলধন মোট ২৩,১৪০ মিলিয়ন টাকা। স্বাধীনতার আগের ব্যাংক ইউনাইটেড ব্যাংক লিমিটেড এবং ইউনিয়ন ব্যাংক লিমিটেড কে রাস্ট্র অধিগ্রহন করে সেই দুটির সমন্বয়ে জনতা ব্যাংক গঠিত হয়। জনতা ব্যাংক গঠণ করা হয়েছিলো ১৯৭২ সালের প্রেসিডেনশিয়াল অর্ডার নং ২৬-এর ম্যাধমে। এরপর এটি কর্পোরেটভুক্ত হয় ২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বর তারিখে। জনতা ব্যাংক লিমিটেডের প্রধান কার্যালয় ১১০ নং মতিঝিলের ২৪ তলা উঁচু ভবনে অবস্থিত। এই ব্যাংকটিরও সারা দেশে প্রচুর শাখা রয়েছে।

 

অগ্রণী ব্যাংক [ Agrani Bank Limited ] :

অগ্রণী ব্যাংক দেশের আরেকটি অন্যতম রাষ্ট্রায়ত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংক। বাংলাদেশের স্বাধীনতার পরে দেশের আর্থ সামাজিক পরিস্থিতির উন্নয়নের জন্য অনেক প্রতিষ্টানকে রাস্ট্র অধিগ্রহন করে। এরে মধ্যে সাবেক হাবিব ব্যাংক লিমিটেড এবং সাবেক কমার্স ব্যাংক লিমিটেড অধিগ্রহন করে প্রতিষ্টা করা হয় অগ্রণী ব্যাংক। ১৯৭২ সালের ২৬শে মার্চ তারিখে বাংলাদেশ সরকার কতৃক জারিকৃত, “বাংলাদেশ ব্যাংকস জাতীয়করণ আদেশ ১৯৭২ পিও নং ২৬” এর মাধ্যমে এই ব্যাংক অধিগ্রহনের কাজটি করা হয়।

 

রূপালী ব্যাংক [Rupali Bank Limited] :

বাংলাদেশের স্বাধীনতার পরে পুর্ববর্তি বিভিন্ন কমার্শিয়াল ব্যাংক অধিগ্রহনের মাধ্যমে যেসব রাস্ট্রিয় ব্যাংক প্রতিষ্টিত হয়েছিলো রূপালী ব্যাংক তার মধ্যে একটি। রূপালী ব্যাংক প্রতিষ্টিত হয় সাবেক অস্ট্রেলেশিয়া ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক ও মুসলিম কমার্শিয়াল ব্যাংক এর সকল দায় ও সম্পদ গ্রহন করে।

বাংলাদেশের ব্যাংক ব্যবস্থা [ Banking System in Bangladesh ]

 

দেশী বেসরকারী বাণিজ্যিক ব্যাংকের নাম :

পূবালী ব্যাংক [ Pubali Bank ] :

দেশে যতগুলো স্বায়ত্বশাসিত বানিজ্যেক ব্যাংক রয়েছে তার মধ্যে পূবালী ব্যাংক লিমিটেড অন্যতম। কর্মকান্ডের বিস্তৃতি ও তৃণমূলে শাখার বিচার করলে পূবালী ব্যাংক সরকারি মালিকানার ব্যাংকগুলোর বৃহত্তম ব্যাংক। পূর্ব পাকিস্তানের কয়েকজন বাঙালি উদ্যোক্তা এই ব্যাংকটিকে ইস্টার্ন মার্কেন্টাইল ব্যাংক নামে প্রতিষ্ঠা করেন ১৯৫৯ সালে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার আগে পর্যন্ত এই ব্যাংকটির নাম ছিল ইস্টার্ন মার্কেন্টাইল ব্যাংক ছিল। ১৯৭২ সালে সরকার অধিগ্রহণ করে নাম দেয় “পূবালী ব্যাংক”। ব্যাংকটি পুনরায় ১৯৮৩ সালে বেসরকারিকরণ করা হয়। বেসরকারি করনের সময় নাম দেয়া হয় “পূবালী ব্যাংক লিমিটেড”।

উত্তরা ব্যাংক [ Uttara Bank ] :

উত্তরা ব্যাংক প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৬৫ সালে। পাকিস্তান আমলে এই ব্যাংকের নাম ছিল “ইস্টার্ন ব্যাংকিং কর্পোরেশন”। তৎকালীন ব্যাংকটির প্রধান কার্যালয় ছিল মতিঝিলে। স্বাধীনতা যুদ্ধের পরে সরকার সকল ব্যাংক অধিগ্রহণ করে। অধিগ্রহণের পরে ১৯৮৩ সালে আবার বেসরকারিকরণ করা হয়। সেসময় উত্তরা ব্যাংক বাংলাদেশের প্রথম বেসরকারি ব্যাংক হিসাবে কার্যক্রম শুরু করে।

আরব বাংলাদেশ ব্যাংক লিঃ [ Arab Bangladesh bank / AB Bank ] :

আরব বাংলাদেশ ব্যাংক লি: বা এবি (এবিবিএল) বাংলাদেশ এর প্রথম বেসরকারি ব্যাংক হিসাবে ১৯৮২ সালের ১২ এপ্রিল প্রতিষ্ঠিত হয়।

ইন্টারন্যাশনাল ফাইনান্স ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড কমার্স (আইএফআইসি) [ International Finance Investment and Commerce Bank Limited (IFIC Bank) ] :

এই ব্যাংকটি সরকার ও বেসরকারি উদ্যোক্তাদের সমন্বয়ে ১৯৭৬ প্রতিষ্ঠা পায়। আশির দশকে কিছু ব্যাংক যখন বেসরকারি খাতে পরিচালনার জন্য ছেড়ে দেয়া শুরু হয়, তখন যেসব ব্যাংক পুরাপুরি বেসরকারি খাতে ছাড়া হয়, তার মধ্যে আইএফআইসও ছিল। বর্তমানে ব্যাংকটির মালিক ব্যাংকের পরিচালক, উদ্যোক্তা ও সাধারণ শেয়ারহোল্ডার। তবে এই ব্যাংকে এখনো ৩২.৭৫% সরকারের শেয়ার রয়েছে।

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড :

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড ১৯৮৩ সালের ১৩ই মার্চ প্রতিষ্ঠিত হয়। ব্যাংকটি বাংলাদেশে ইসলামী বা শরিয়া ব্যাংকিং শুরু করে।

ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড [ National Bank Limited ]:

ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড একটি বেসরকারি মালিকানাধীন বাণিজ্যিক তফসিলি ব্যাংক।

দি সিটি ব্যাংক লি:

দি সিটি ব্যাংক লিমিটেড বাংলাদেশের একটি বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক। দি সিটি ব্যাংক তাদের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করে ১৯৮৩ সালের ২৭ মার্চ। ব্যাংকটি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ-এ নিবন্ধিত।

ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিঃ

ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসি (ইউসিবি ব্যাংক) বাংলাদেশ এর একটি বেসরকারি ব্যাংক হিসাবে প্রতিষ্ঠা লাভ করে ১৯৮৩ সালের ২৭ জুন। ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসি তাদের ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু করে ১৯৮৩ সালের ২৭ জুন। বাংলাদেশে ব্যাংটির মোট ২০৬ টি শাখা আছে।

আল-বারাকা ব্যাংক বাংলাদেশ লিঃ

বিশ শতকের ষাটের দশকে মিসরের মিটগামারে প্রথম সুদমুক্ত ইসলামি ব্যাংকের যাত্রা শুরু। তখন বাংলাদেশেও এরূপ একটি ব্যাংক প্রতিষ্ঠার দাবি উঠতে থাকে নানা দিক থেকে। দেশ স্বাধীনের পর ১৯৭৪ সালে বাংলাদেশ ইসলামিক ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (আইডিবি) র চার্টার স্বাক্ষরের পর ১৯৭৬ সালে মওলানা মুহাম্মদ আবদুর রহীমের নেতৃত্বে ঢাকায় ইসলামি অর্থনীতি গবেষণা ব্যুরো প্রতিষ্ঠিত হয়।

তার তিন বছরের মাথায় সংযুক্ত আরব আমিরাতে নিযু ক্ত বাংলাদেশের তখনকার রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ মহসিন দুবাই ইসলামি ব্যাংকের আদলে বাংলাদেশে একটি ইসলামি ব্যাংক প্রতিষ্ঠার জন্য পররাষ্ট্র সচিবের কাছে এক চিঠি লিখে সুপারিশ করেন। নভেম্বরে ওই চিঠি পাঠানোর পরের মাসে অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংকিং শাখা বাংলাদেশে ইসলামি ব্যাংক প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অভিমত জানতে চায়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিনিধি হিসেবে তৎকালীন গবেষণা পরিচালক এ এস এম ফখরুল আহসান ১৯৮০ সালে ইসলামি ব্যাংকগুলোর কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ ও পর্যালোচনার জন্য দুবাই ইসলামি ব্যাংক, মিসরের ফয়সাল ইসলামি ব্যাংক, নাসের সোশ্যাল ব্যাংক এবং আন্তর্জাতিক ইসলামী ব্যাংক সমিতির কায়রো অফিস পরিদর্শন করেন। ১৯৮১ সালে তিনি বাংলাদেশে ইসলামি ব্যাংক প্রতিষ্ঠার সুপারিশ করে একটি প্রতিবেদন পেশ করেন।

১৯৮১ সালের মার্চে ওআইসিভুক্ত দেশগুলোর কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নরদের সম্মেলন খার্তুমে অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর জানান, বাংলাদেশে ইসলামি ব্যাংক প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে। ১৯৮১ সালে এপ্রিল মাসে অর্থ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে লেখা এক পত্রে পাকিস্তানের অনুরূপ বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোর শাখাগুলোতেও পরীক্ষামূলকভাবে পৃথক ইসলামি ব্যাংকিং কাউন্টার চালু করে এ জন্য পৃথক লেজার রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়।

  • ইষ্টার্ণ ব্যাংক লিঃ
  • ন্যাশনাল ক্রেডিট এন্ড কমার্স ব্যাংক
  • প্রাইম ব্যাংক লি:
  • সাউথ ইষ্ট ব্যাংক লিঃ
  • ঢাকা ব্যাংক লিঃ
  • আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংক লিঃ
  • সোস্যাল ইনভেষ্টমেন্ট ব্যাংক লিঃ
  • ডাচ-বাংলা ব্যাংক
  • মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিঃ
  • ষ্টান্ডার্ড ব্যাংক লিঃ
  • বেক্সিম ব্যাংক লিঃ
  • বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক লিঃ
  • মিউচুয়াল ট্রাষ্ট ব্যাংক লিঃ
  • ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংক লিঃ

বিদেশী বেসরকারী বাণিজ্যিক ব্যাংকের নাম :

  • আমেরিকান এক্সপ্রেস লিমিটেড
  • ক্রেডিট এগ্রিকোল ইন্দোসুয়েজ (দিবারাত্রী)
  • এ এন জেড গ্রীভলেজ ব্যাংক পিএসসি
  • স্টান্ডার্ট চার্টার্ড ব্যাংক
  • হাবিব ব্যাংক
  • ষ্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া
  • ন্যাশনাল ব্যাংক অফ পাকিস্তান
  • মুসলিম কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড
  • সিটি ব্যাংক এনএ
  • ফয়সাল ইসলামিক ব্যাংক অফ বাহরাইন ইসি
  • হানভিট ব্যাংক লিমিটেড
  • দি হংকং এন্ড সাংহাই ব্যাংকিং কর্পোরেশন লিঃ
  • দি ব্যাংক অব নোভা স্কোশিয়া

 

আরও পড়ুন:

“বাংলাদেশের ব্যাংক ব্যবস্থা [ Banking System in Bangladesh ]”-এ 6-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন